জঞ্জালের স্তুপ আর দুর্গন্ধে নাজেহাল বহরমপুরবাসী

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ জঞ্জালের স্তুপে ঢেকেছে মুর্শিদাবাদের সদর শহর বহরমপুর। সংস্কৃতির শহর ঐতিহ্যের এই শহর আজ ঢাকছে নোংরা আবর্জনায়। এক সময়ে যে শহর নজর কারত পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার জন্য, কিন্তু আজ সেই ছবিটার আমূল পরিবর্তন। নোংরা আবর্জনার স্তূপ জমতে জমতে পাহাড় হচ্ছে, দুর্গন্ধে চলাফেরা করাই দায় হচ্ছে- কিন্তু সেই জঞ্জাল সাফাই আর হচ্ছে না। চরম দুর্দশায় আম জনতা। বহরমপুরের জনবহুল এলাকা শহীদ সূর্য সেন রোড থেকে কে কে ব্যানার্জি রোডে- আবর্জনা জায়গা দখল করেছে। স্থানীয় মানুষজন বলছেন, নিয়মিত জঞ্জাল সাফাই হয় না বলেই অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে দিন কাটছে তাদের। বহরমপুর পৌরসভার উদাসীনতার দিকেই নিয়েই প্রশ্ন তুলছেন সকলেই। নাকে রুমাল দিয়ে দোকানে বসছেন দোকানদাররা। দুর্গন্ধে একপ্রকার টেকা দায়। রাস্তায় পরে থাকে জঞ্জাল পায়ে ঠেলেই চলছে যাতায়াত। রোগ জীবানু ছড়ানোর ভয় জন্মেছে বাসিন্দারের। শহীদ সূর্য সেন রোডের মতোই একই অবস্থা কে কে ব্যানারজি রোডের একাংশেও। রাস্তার পাশে রয়েছে স্কুল। ঠিক তার সামনেই ডাস্টবিন উপচে রাস্তায় এসেছে জঞ্জাল। আশেপাশের মানুষজন অগত্যা সেই উপচে পড়া ডাস্টবিনেই ফেলছেন প্রতিদিনের নোংরা, আবর্জনা। রাস্তা সংকীর্ণ হওয়ায় যানজট হচ্ছে, হচ্ছে দুর্ঘটনাও.শহরের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্ত- যে দিকেই চোখ যায়- জঞ্জাল আবর্জনায় ভরা রাস্তার ছবিটা সর্বত্র। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে কেন? কি কারনে পৌরসভার তরফে নিয়মিত ডাস্টবিন পরিষ্কার হচ্ছে না? কেন সঠিক পরিষেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন আম জনতা? জানতে চান বহরমপুরবাসী।