কেন গুলিবিদ্ধ নবগ্রামের TMC নেতা ঘনিষ্ট রুবেল ?

মধ্যবঙ্গ নিউজ ডেস্কঃ  সদ্য বিএ পাশ করা ২৩ বছরের মেহেবুব ওরফে রুবেল এর পরিবার ১২ ঘণ্টা পেড়িয়ে গেলেও জানতে পারেননি তাঁদের একমাত্র ছেলে গুলিবিদ্ধ হয়েছে । বাড়ি থেকে ৭ -৮ কিলো মিটার দূরে বিলবসিয়ার মাঠে। রাত থেকে রুবেলের মা মবিনা বিবি  বারবার ফোন করেছেন  রুবেলকে ।  ফোন বেজে গিয়েছে । ফোন ধরে নি কেউ।  তারপর লোক মারফৎ খবর আসে রবেল গুলিবিদ্ধ  হয়েছে। কান্নায় ভেঙে পড়ে পরিবার।

 

নবগ্রাম ব্লক তৃণমূল সভাপতি এনায়েতুল্লার সাথে বছর খানেক ধরে ঘনিষ্ট হন রুবেল। পাশাপাশি জমির জরিপের কাজেও হাত পাকাতে শুরু করেন বলে পরিবারের দাবি। কিন্তু মঙ্গলবার গভীর রাতে কী এমন ঘটল যাতে গুলিবিদ্ধ হলেন ২৩ বছরের তরতাজা যুবক ?  কারা ছিলেন রাতে তাঁর সাথে ওই বিল বসিয়ার মাঠে ? সকাল থেকেই লালবাগের এসডিপিও নেতৃত্বে নবগ্রাম থানায় দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় এনায়েতুল্লা সহ রুবেলের  সঙ্গীদের । রুবেলের বাবা  গোলাম রসুল অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তিদের নামে নবগ্রাম থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ।

রুবেল কীভাবে  গুলিবিদ্ধ হল  তা নিয়ে তদন্ত চলছে বলে পুলিশ সূত্রে জানানো  হয়েছে। এনিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজাও। বিজেপি নেতা শংকর তরফদার বলেন, পঞ্চায়েত ভোট যতো এগিয়ে আসছে একের পর গুলি চলার ঘটনা ঘটছে। সিপিআই(এম) নেতা সচ্চিদানন্দ কান্ডারী বলেন, সারা জেলায় খুন, জখম, গুলি চালানোর ঘটনা চলছে। এটা পুলিশের ব্যর্থতা। বামপন্থীদের ওপরেও তৃণমূল আক্রমণ করছে। কংগ্রেস নেতা জয়ন্ত দাস বলেন, পঞ্চায়েত ভোটের দিন এগিয়ে আসতেই তৃণমূলের মধ্যে  সংঘর্ষ বাড়ছে।  যদিও বিরোধীদের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন তৃণমূল নেতা অশোক দাস। অশোক দাস বলেন, হারানো মাটি ফিরে পেতে একজোট হয়ে খুন,   জখমের রাজনীতি করছে বিরোধীরা।