ইলিশ উৎপাদনে জোড় – একলক্ষ মাছের চারা ছাড়া হল গঙ্গায়

নিজস্ব প্রতিবেদন: রুপোলী শস্যের উৎপাদন বৃদ্ধিতে প্রচুর সংখ্যক মাছের চারা ছাড়া হল ফারাক্কার গঙ্গায়। একদিকে গঙ্গাকে দূষণ মুক্ত করা অন্যদিকে মাছের উৎপাদন বাড়িয়ে মৎস্য জীবীদের জীবিকার মানোন্নয়নের করমজজ্ঞ চলছে সেন্টার ইনল্যান্ড ফিসারিস রিসার্চ ইন্সটিটিউটের পক্ষ থেকে । তাই মৎস্য জীবীদের সুবিধার্থে এবং গঙ্গা দূষণ প্রতিরোধ করতে পাশাপাশি গঙ্গায় ইলিশ মাছের উৎপাদন বাড়াতে বুধবার প্রায় এক লক্ষ মাছের চারা ছাড়া হল ফারাক্কার গঙ্গায়।

ছোট ছোট রুই, কাতলা,মৃগেল মাছের চারা ছাড়া হল ফারাক্কার গঙ্গায় । জানা গেছে আড়াই বছরে ৩০ লক্ষ মাছ ইতিমধ্যেই ছাড়া হয়েছে এলাহাবাদ থেকে শুরু করে এই রাজ্যেও। ফারাক্কার ইলিশ রাঞ্চিং ষ্টেশন ঘাটেও চলে এই কর্মসূচী। ফারাক্কা ব্যারেজ প্রোজেক্টের কর্তৃপক্ষ ও এনটিপিসির কর্তৃপক্ষ এবং CIFRI এর সদস্যরা নৌকো করে গঙ্গায় এইভাবেই মাছের চারা ছাড়লেন।

অন্য দিকে বিশেষ ভাবে জোর দেওয়া হচ্ছে ইলিশ উৎপাদনেও। ডাউন স্ট্রিম-এ পর্যাপ্ত ইলিশ থাকলেও আপার স্ট্রিম-এ উৎপাদন কমেছে। ফারাক্কা ব্যারেজের আপার স্ট্রিম-এও ইলিশ মাছের চারা ছাড়া হল। বিগত দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে ফারাক্কার পর থেকে এলাহাবাদ মৎসজীবিরা পর্যাপ্ত ইলিশ মাছ প্রায় পায় না। সেই কারণে কেন্দ্র সরকারের একটি প্রকল্প নিয়েছে যেখানে ফারাক্কা ব্রিজের আপস্ট্রিমে সংরক্ষণ করে সেখানে ট্যাগ করে ইলিশ মাছ ছাড়া হয়।এই ইলিশ এলাহাবাদ পর্যন্ত পৌছয় প্রমান পেয়েছে CIFRI. মাছেদের গতি প্রকৃতি নজরে রাখতে এদনিও ৪০ টি ইলিশ ট্যাগ করে ছাড়া হয় গঙ্গায়।